শুক্রবার, ২২ মার্চ ২০১৯, ০৬:৪৮ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম
ক্রিকেট খেলার বাজি ধরতেই গৌরীপুর জংশনের ক্যাশের টাকা লুট! ইতালিতে স্কুলবাস ছিনতাই করে আগুন, চালক গ্রেপ্তার অল্পের জন্য রক্ষা পেলেন মেনন গুজবে সালমান খান কনে সেজেছে বরও হাজির, এমন সময়… চীনে গাড়ি নিয়ে হামলায় নিহত ৬ অশালীন উদযাপনে ১৯ লাখ টাকা জরিমানা রোনালদোর বিশ্বের সবচেয়ে ছোট মিউজিয়াম দেখে নিন বাংলাদেশ দলের আয়ারল্যান্ড সফরের সূচি বরিশালে বাস-মাহিন্দ্রা মুখোমুখি সংঘর্ষে শিক্ষার্থীসহ নিহত ৫ কক্সবাজারে বন্দুকযুদ্ধে নিহত ৩ ইরাকে ফেরি ডুবে শতাধিক মানুষের মৃত্যু স্বপ্নের পদ্মা সেতুতে বসানো হলো ৯ নম্বর স্প্যান আমরা সবাই এক: জেসিন্ডা সাংবাদিক আনোয়ারুল হক আর নেই নীলাচলের চাপায় সড়কেই লাশ বাবা-ছেলে ব্রাশফায়ারে নিহতদের পরিবারকে সাড়ে ৫ লাখ টাকা করে দেয়া হবে এক টুকরো বরফেই কেল্লা ফতে মুক্তি পেল ট্রেলার, পাকিস্তানকে হুঙ্কার দিলেন ‘মোদী’ সফল অস্ত্রোপচারের পর ওবায়দুল কাদেরের স্বাস্থ্যের উন্নতি
দেশের ব্যাংকিং খাত নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করলেন অর্থমন্ত্রী

দেশের ব্যাংকিং খাত নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করলেন অর্থমন্ত্রী

বাংলা৭১নিউজ,ঢাকা: দেশের ব্যাংকিং খাত নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।তিনি বলেন, ‘ব্যাংকিং খাত আমরা যেভাবে চালাচ্ছি, এভাবে চললে কোনো দিনই উন্নয়ন সম্ভব হবে না।’

বৃহস্পতিবার রাজধানীর ইন্টারকন্টিনেন্টাল হোটেলে অগ্রণী ব্যাংকের বার্ষিক সম্মেলন-২০১৯ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অর্থমন্ত্রী এই ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

অগ্রণী ব্যাংকের চেয়ারম্যান ড. জায়েদ বখতের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির, অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিব মো. আসাদুল ইসলাম, ব্যাংকের পরিচালক কাশেম হুমায়ূন প্রমুখ বক্তৃতা করেন।

অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘স্বল্প মেয়াদি আমানত গ্রহণ করে দীর্ঘমেয়াদি ঋণ দেয়া যেতে পারে না। এর মাধ্যমে যারা উন্নয়নের চিন্তা করেন, তারা বোকার রাজ্যে রয়েছেন।’

এজন্য বন্ড মার্কেটে জোর দিতে হবে বলেও জানান তিনি।

মুস্তফা কামাল বলেন, দেশের ভালো প্রতিষ্ঠান হিসেবে সর্বপ্রথম প্রাণকে দিয়েই বন্ডের বিনিয়োগ শুরু করা হবে। এক্ষেত্রে কেন্দ্রীয় ব্যাংককে প্রয়োজনীয় সহযোগিতা করার পরামর্শ দেন তিনি।

মন্ত্রী আরও বলেন, ‘দেশের উন্নয়নে করের পরিধি আরও বাড়াতে হবে। আমাদের দেশে যারা কর প্রদান করেন, তারাই বারবার দেন। নতুন করে ট্যাক্সের আওতায় আসার উপযোগী অনেকে এই তালিকার অন্তর্ভূক্ত হচ্ছেন না। তাই আগামীতে কর না বাড়িয়ে করের আওতা বাড়ানো হবে।’

স্বাগত বক্তব্যে ব্যাংকের সিইও এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ শামস-উল ইসলাম বলেন, ‘২০১৮ সাল শেষে অগ্রণী ব্যাংকের আমানত দাঁড়িয়েছে ৬২ হাজার ৩৯২ কোটি টাকা। এ সময় ঋণ ও অগ্রিমের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৩৯ হাজার ৫৭৫ কোটি টাকা। শ্রেণিকৃত ঋণ (খেলাপি ঋণ) দাঁড়িয়েছে ৫ হাজার ৭৫১ কোটি টাকা; যা মোট ঋণের ১৬.২১ শতাংশ। আলোচিত সময়ে এর শাখার সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৯৫২টিতে।’

বাংলা৭১নিউজ/এসই

Please Share This Post in Your Social Media


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৫ – ২০১৯ । জেডএস মাল্টিমিডিয়া লিমেটেড এর একটি প্রতিষ্ঠান